nidw.gov.bd ভোটার আইডি কার্ড জন্ম তারিখ সংশোধন NID Birth Date Change

ভোটার আইডি কার্ড এমন একটি পরিচয় পত্র যা আপনাকে সারা বাংলাদেশের ভেতরে আলাদাভাবে পরিচয় প্রদান করবে এবং আপনি এর মাধ্যমে নিজের ব্যক্তিগত পরিচয় সরকারিভাবে প্রদান করার সুযোগ পাবেন। তাই ভোটার আইডি কার্ডের মাধ্যমে একজন ব্যক্তিকে খুব সহজে সনাক্ত করা যায় বলে এটি অবশ্যই প্রত্যেকটি কাজে এবং প্রত্যেকটি বিষয়ে ব্যবহার করার ক্ষেত্রে সচেতন ভূমিকা পালন করতে হবে।

আপনার ভোটার আইডি কার্ডে যদি আপনি দেখেন এখানে ভুল রয়েছে এবং আপনার অন্যান্য গুরুত্বপূর্ণ ডকুমেন্টস এর সঙ্গে সেই ভুল স্পষ্টভাবে লক্ষ্য করা যাচ্ছে তাহলে অবশ্যই ভোটার আইডি কার্ডের তথ্য সংশোধন করতে হবে। বর্তমানে ভোটার আইডি কার্ডের তথ্য সংশোধন করার যে সহজ নিয়ম চালু হয়েছে তাতে মানুষের ভোগান্তি যেমন কমে এসেছে তেমনি খুবই অল্প খরচের মাধ্যমে ভোটার আইডি কার্ডের তথ্য সংশোধন করা সম্ভব হচ্ছে।

আপনি যদি কোন কর্ম ক্ষেত্রে প্রবেশ করতে চান তাহলে আপনাকে ভোটার আইডি কার্ডের তথ্য প্রদান করতে হবে। শিক্ষাগত যোগ্যতার ভিত্তিতে আপনি যদি কোথাও কাজ করতে চান তাহলে আপনাকে আপনার সার্টিফিকেটের ডকুমেন্টস এবং জন্ম নিবন্ধন সনদে ভোটার আইডি কার্ড প্রদান করতে হবে। এক্ষেত্রে আপনার শিক্ষকতা যোগ্যতা এবং অন্যান্য ডকুমেন্টস এর সঙ্গে যখন ভোটার আইডি কার্ডের তথ্যের মিল না থাকবে এবং জন্ম তারিখ সংক্রান্ত ভুল যখন পরিলক্ষিত হবে তখন আপনি এই সুযোগ গ্রহণ করছেন বলে আপনাকে হয়তো সেই কাজ থেকে বাদ দেওয়া হতে পারে।

ভোটার আইডি কার্ড জন্ম তারিখ সংশোধন NID Birth Date Change

nidw.gov.bd আইডি কার্ড চেক করুন অনলাইনে

তাই এ সকল সেনসিটিভ কাজে আপনাদেরকে প্রত্যেকটি ডকুমেন্টস এমন ভাবে তৈরি করে রাখতে হবে যাতে প্রত্যেকটি সঙ্গে প্রত্যেকটি মিল থাকে এবং পিতা-মাতার ডকুমেন্টস এর সঙ্গে যেন মিল থাকে। তাই আপনি যখন আপনার ভোটার আইডি কার্ডের জন্ম তারিখের ভুল লক্ষ্য করতে পারবেন তখন সংশোধন করার জন্য আপনার সার্টিফিকেটের সঙ্গে এবং জন্ম নিবন্ধন সনদের সঙ্গে মিল থাকতে হবে। আর এই ক্ষেত্রে আপনাদেরকে https://services.nidw.gov.bd/nid-pub/ ওয়েবসাইটে প্রবেশ করে আপনার তথ্য সংশোধন করার জন্য ভোটার আইডি কার্ডের তথ্য দিয়ে প্রোফাইল ওপেন করতে হবে।

ভোটার আইডি কার্ড ডাউনলোড nidw.gov.bd

ভোটার আইডি কার্ডের ভুল সংশোধন

প্রোফাইল ওপেন করার ক্ষেত্রে আপনাদেরকে যে সকল যাপন অনুসরণ করতে হবে সেগুলো আপনারা বাংলাতে পূরণ করবেন বলে কোন সমস্যা হবে না এবং এখানে ওটিপি মেসেজ এবং এনআইডি ওয়ালেট এর যে গুরুত্বপূর্ণ কাজগুলো রয়েছে সেগুলো সূক্ষ্ম ভাবে সম্পন্ন করবেন। তারপরে যখন আপনার প্রোফাইল ওপেন হয়ে যাবে তখন অবশ্যই আপনার প্রোফাইলে লগইন করবেন এবং সেখানে প্রবেশ করলে আপনার ব্যক্তিগত তথ্যের জায়গাতে গিয়ে আপনার জন্ম তারিখের ঘরে যাবেন এবং উপরের দিকে এডিট অপশনে ক্লিক করবেন।

অপশনে কে আপনি যে সঠিক জন্ম সাল বা জন্ম তারিখ পৌঁছাতে চাচ্ছেন সেটি বসিয়ে দেবেন এবং এই তথ্য সংশোধন করার জন্য এর জন্য আপনাকে অবশ্যই একটি শক্তিশালী প্রমাণ দাখিল করতে হবে। বিশেষ করে আপনার মাধ্যমিকের সার্টিফিকেট এবং জন্মনিবন্ধন সনদ যদি ওয়েবসাইটের নির্দিষ্ট রেজুলেশনে আপলোড করতে পারেন তাহলে আপনার সংশোধনের আবেদন সাবমিট করা হয়ে যাবে এবং সেখান থেকে আপনারা নির্দিষ্ট পরিমাণ ফি জমা দিয়ে অপেক্ষা করবেন। আর উপরের উল্লেখিত তথ্য অনুসারে আপনারা যদি প্রত্যেকটি কাজ সম্পন্ন করতে পারেন তাহলে নির্দিষ্ট সময়ের ভেতরে আপনাদের ভোটার আইডি কার্ডের জন্ম তারিখ সংশোধন করা সম্ভব।

Related Articles

7 Comments

  1. আসসালামুয়ালাইকুম , আইডি কার্ডের বয়স সংশোধন করতে চাই ছিলাম।কি বাবে যোগাযোগ করব

  2. আমার জন্মদিনের তারিক এর সাল ১৯৯৪ থেকে ১৯৯৮ করতে হবে,।

    পিতাঃ ওসমান গনি থেকে মৃত ওসমান গনি
    বসাতে হবে,।

  3. আমার জন্ম তারিখঃ০৩-০৫-১৯৯২ইং আমার আইডিতে আমার পিতার নাম- মোঃরুহুল আমিন এখন আমার আইডিতে দীতে হবে মোঃ আমিনুল ইসলাম

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button