জাতীয় পরিচয় পত্র সংশোধন করার উপায়

জাতীয় পরিচয় পত্র সংশোধন করার উপায় সম্পর্কে যারা জানেন না তারা আজকে এই পোষ্টের মাধ্যমে একেবারে নির্ভুল তথ্য এবং বিস্তারিত তথ্য জেনে নিন। কারণ ঘরে বসে কিভাবে জাতীয় পরিচয় পত্র সংশোধন করা যায় তা অনেকেই জানেন না বলে বিভিন্ন সময় বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে দৌড়াদৌড়ি করেন এবং এক্ষেত্রে আপনাদের যেমন সময় নষ্ট হয় তেমনি ভাবে আপনাদেরকে অনেক হয়রানির শিকার হতে হয়।

তবে যাই হোক প্রত্যেকের হাতে এখন ডিভাইস থাকার সুবিধার কারণে এবং প্রত্যেকে প্রত্যেকটি তথ্য অনলাইন থেকে সংগ্রহ করার সুবিধা পাচ্ছে বলে যেকোনো সময় আপনি যেকোন তথ্য আমাদের ওয়েবসাইট ভিজিট করে পাবেন। তাই আপনাদের জাতীয় পরিচয় পত্র সংশোধন করতে হলে এটা অতি সত্ত্বর করে নেবেন। কেননা যে কোন সময় এটার প্রয়োজন পড়ে এবং বিভিন্ন ক্ষেত্রে আপনারা যখন প্রাতিষ্ঠানিক কাজে এটি জমা দিবেন তখন অন্যান্য কাগজপত্রের সঙ্গে জাতীয় পত্রের তথ্যের মিল না হয় তাহলে অনেক সময় সমস্যা দেখা দেয় এবং এতে বড় সমস্যা হয়।

তাই জাতীয় পরিচয় পত্রের সমস্যা নিয়ে আপনারা বসে না থেকে ঘরে বসেই অনলাইনের মাধ্যমে সমাধান করুন এবং এটি যদি সমাধান করার ক্ষেত্রে গুরুতর কোন বিষয় হয় তাহলে উপজেলা সার্ভার স্টেশন অথবা জাতীয় নির্বাচন কমিশনের অফিসে যোগাযোগ করে প্রয়োজনীয় কাগজপত্র দাখিল করার মাধ্যমে আপনার জাতীয় পরিচয়পত্রের সংশোধিত তথ্য অথবা আইডি কার্ড সংগ্রহ করে নিন। যাইহোক জাতীয় পরিচয় পত্রের তথ্য ভুল থাকলে এটা অবশ্যই অবশ্যই সংশোধন করতে হবে এবং এই সংশোধন করার নিয়ম এখন এখান থেকে আলোচনা করা হলো।

জাতীয় পরিচয় পত্র যখন আপনার সংশোধন করতে চাইবেন তখন আপনাদেরকে একটি নির্দিষ্ট অফিশিয়াল ওয়েবসাইট সম্পর্কে জানতে হবে এবং এই অফিসিয়াল ওয়েবসাইটের এড্রেস হলো https://services.nidw.gov.bd/nid-pub/ । এই অফিশিয়াল ওয়েবসাইটে প্রবেশ করার পর আপনাদেরকে যেটি করতে হবে সেটি হল সেখানে আপনার একটি নির্দিষ্ট প্রোফাইল খুলে নিতে হবে। আপনি যদি এর আগে জাতীয় পরিচয় পত্রের অফিশিয়াল ওয়েবসাইটে প্রবেশ করে অ্যাকাউন্ট খুলে থাকেন অথবা রেজিস্টার করে থাকেন তাহলে আপনাকে নতুন করে প্রোফাইল খোলার প্রয়োজন নেই।

নতুন করে প্রোফাইল খুলে এর পরিবর্তে আপনারা শুধু আগের আইডি নাম্বার এবং পাসওয়ার্ড প্রদান করে লগইন করবেন এবং যদি না খোলা থাকে তাহলে আপনাদেরকে একাউন্ট রেজিস্টার করতে হবে। রেজিস্টার করার ক্ষেত্রে যে সকল নিয়ম রয়েছে সে সকল নিয়ম আপনারা সেখানে মেনে চলবেন এবং এক্ষেত্রে আপনার প্রোফাইল খুলতে হলে আপনার তথ্য প্রদান করার সময় যে ফোন নাম্বার দিয়েছিলেন সেই ফোন নাম্বারে একটি ওটিপি নাম্বার যাবে।

এই ওটিপি নাম্বার যথাস্থানে বসিয়ে আপনাদেরকে এনআইডি ওয়ালেট নামক একটি সফটওয়্যার ডাউনলোড করে নিতে হবে এবং সেখানে ক্যামেরার মাধ্যমে যার জাতীয় পরিচয় পত্রের তথ্য সংশোধন করবেন তার মুখমন্ডল এনে বিভিন্ন অ্যাঙ্গেল থেকে ছবি তুলে ওয়েবসাইটের নীতিমালা অনুসরণ করে সেখানে প্রোফাইল খুলে নিতে হবে। যাইহোক আপনি যখন তথ্য সংশোধন করবেন তখন আপনাকে প্রোফাইলে প্রবেশ করতে হবে এবং প্রোফাইলে তিনটি ধাপে অর্থাৎ তিন ভাগের তথ্য প্রদর্শন করানো হয় বলে আপনারা উপরের এডিট অপশনে চলে যাবেন।

আপনি যদি ঠিকানা সংক্রান্ত তথ্য প্রদান করতে হয় এত তথ্য সংশোধন করতে হয় তাহলে সেখানে ক্লিক করুন অথবা ব্যক্তিগত অথবা অন্যান্য তথ্য যদি সংশোধন করার প্রয়োজন হয় তাহলে আপনার সুবিধা অনুযায়ী সেই তথ্যের উপরে চলে যান। আপনি যেহেতু এডিট অপশনে প্রবেশ করেছেন এবং যে তথ্যটি সংশোধন করতে চাইছেন সেহেতু সেই তথ্যের নামের উপরে যে টিক চিহ্ন বা ফাঁকা ঘর রয়েছে সেখানে ক্লিক করে টিক চিহ্ন দিয়ে দিন এবং সঠিক তথ্য প্রদান করুন। এভাবে আপনারা একাধিক তথ্য প্রদান করার পরে আপনার সেখানে ডিপোজিট করা না থাকলে আপনার বিভিন্ন ধরনের মোবাইল ব্যাংকিং এর অ্যাকাউন্ট অথবা ব্যাংক একাউন্টের মাধ্যমে টাকা ডিপোজিট করে নিন।

জাতীয় পরিচয় পত্রের তথ্য সংশোধনের ক্ষেত্রে আপনাদেরকে যে টাকা ডিপোজিট করতে হবে তার পরিমাণ হল 230 টাকা। এই টাকা ডিপোজিট করার ক্ষেত্রে আপনাদেরকে অবশ্যই কি কারণে আপনারা তথ্য সংশোধনের জন্য টাকা প্রদান করছেন তা মোবাইল ব্যাংকিং ও ব্যাংকিং এর অপশন পেয়ে যাবেন এবং সেখান থেকে পে বিল নামক অপশন সিলেক্ট করে এই কাজটি করবেন। পরবর্তীতে ওয়েবসাইটে ফিরে আসবেন এবং ওয়েবসাইটের সেই পেজ রিলোড করার মাধ্যমে দেখতে পারবেন যে সেখানে টাকা ডিপোজিট হয়ে গিয়েছে এবং সেখান থেকে আপনারা পরবর্তী ধাপ অনুসরণ করে যে তথ্য সংশোধন করলেন তার প্রমাণাদি সাপেক্ষে প্রয়োজনীয় কাগজপত্র আপলোড করুন।

আর আপলোড করার ক্ষেত্রে অবশ্যই ওয়েবসাইটের নিয়ম অনুসারে নির্ধারিত পিক্সেলে এবং নির্ধারিত কিলোবাইট এর মধ্যে সেই ধরনের ফাইল রেখে এই কাজটি আপনাদেরকে করতে হবে এবং যখন হয়ে যাবে তখন আপনারা প্রোফাইলে চলে এসে উপরের দিকে আপনার আবেদন পত্র ডাউনলোড করার জন্য অপশন পেয়ে যাবেন। এভাবে আপনারা তথ্য সংশোধনের আবেদনপত্র ডাউনলোড করুন এবং তার সহকারে প্রয়োজনীয় কাগজপত্র নিয়ে নির্বাচন কমিশনের অফিসে গিয়ে জমা দিলে তারা আপনাদের তথ্য সংশোধন বা তথ্য আপডেট করে দিবে।

Related Articles

3 Comments

  1. Amar date of birth certificate..ar passport e div kicu thik achey ..kintu nid Tay problem..akhon ke kora jabe

  2. My NID card my name not current
    My name is ARIF HOSSEN
    BUT NID CARD MY NAME ARIF HOSEN
    MY PASSPORT AND MY ALL CERTIFICATE NAME ARIF HOSSEN OK

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button