nidw.gov.bd ভোটার আইডি কার্ডের ভুল সংশোধন ঘরে বসে মোবাইল দিয়ে

ভোটার আইডি কার্ড অনেকে তৈরি করে থাকলে অনেক সময় দেখেন যে আপনাদের এই ভোটার আইডি কার্ডে বিভিন্ন ধরনের ভুল ভ্রান্তি লক্ষ্য করা যাচ্ছে। তাই আপনার ভোটার আইডি কার্ডের ভুল সংশোধনের জন্য আপনাকে বিভিন্ন ব্যক্তিকে অতিরিক্ত পরিমাণ টাকা যেমন প্রদান করতে হবে না তেমনি খুব অল্প সময়ের মধ্যে আপনারা ভোটার আইডি কার্ডের তথ্য সংশোধন করে নিতে পারবেন।

তাছাড়া ভোটার আইডি কার্ড একটি গুরুত্বপূর্ণ পরিচয় পত্র বলে অন্যান্য ডকুমেন্টের সঙ্গে এটা মিল রাখতে হবে। তাছাড়া বর্তমান সময়ে বাংলাদেশ নির্বাচন কমিশনের অফিসিয়াল ওয়েবসাইটের মাধ্যমে তথ্য সংশোধন করা সম্ভব হচ্ছে বলে খুবই অল্প খরচের বিনিময়ে আপনারা এগুলো সংশোধন করে নিতে পারবেন।

যারা ঘরে বসে ভোটার আইডি কার্ডের তথ্য সংশোধন করতে চান তাদের একটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয় লক্ষ্য রাখতে হবে। আপনি যখন তথ্য সংশোধন করতে চাইবেন তখন আপনাকে তথ্য সংশোধনের বিপরীতে নির্দিষ্ট কিছু প্রমাণাদি ওয়েবসাইটে সাবমিট করতে হবে। এই প্রমাণ পত্র আপনাদেরকে স্ক্যান করে সাবমিট করতে হবে এবং আপনাদের যেহেতু স্ক্যানার নিয়ে সেহেতু আপনারা মোবাইল ফোনের মাধ্যমে ছবি তুলে নির্দিষ্ট ওয়েবসাইটে প্রবেশ করে রেজুলেশন এবং আকৃতি কমবেশি করে নিতে পারেন।

ভোটার আইডি কার্ড ডাউনলোড nidw.gov.bd

ভোটার আইডি কার্ডের ভুল সংশোধন

যখন আপনারা মোবাইলের মাধ্যমে এই জিনিসগুলো করে নিতে পারবেন তখন ঘরে বসে আপনাদের পক্ষে ভোটার আইডি কার্ডের তথ্য সংশোধন করা সম্ভব হবে। তথ্য সংশোধন করার জন্য আপনাদের থেকে যে সকল তথ্য যা হবে সেগুলো যথাযথভাবে প্রদান করার জন্য এবং যার ভোটার আইডি কার্ড সংশোধন করছেন তাকে সামনে নিয়ে এই কাজগুলো করবেন।

ভোটার আইডি কার্ডের তথ্য সংশোধন করার জন্য যে ওয়েবসাইটে যাবতীয় কাজ সম্পাদন করা হয় সেই ওয়েবসাইটের ঠিকানা হলো
https://services.nidw.gov.bd/nid-pub/ । আপনারা এই ঠিকানা ব্যবহার করার জন্য এখান থেকে কপি করে নিন এবং গুগল ক্রোম ব্রাউজারে গিয়ে পেস্ট করে অফিসিয়াল ওয়েবসাইটে প্রবেশ করে কাজ শুরু করে দিন। প্রথমত আপনাদের অ্যাকাউন্ট না থাকলে এখানে একটি অ্যাকাউন্ট ওপেন করতে হবে এবং অ্যাকাউন্ট ওপেন করার জন্য আপনার ভোটার আইডি কার্ডের নাম্বার সহ অন্যান্য ব্যক্তিগত তথ্য এবং অফিসিয়াল তথ্য প্রদান করতে হবে।

এই পোষ্টের মাধ্যমে ভোটার আইডি কার্ড ডাউনলোড

ঘরে বসে বাংলাদেশ নির্বাচন কমিশনের তথ্য সংশোধন

২টি ধাপ সম্পন্ন করে NID Smart Card ডাউনলোড

প্রত্যেকটি তথ্য প্রদান করার ভিত্তিতে এবং এনআইডি ওয়ালেট নামক সফটওয়্যার এর যাবতীয় কাজ সম্পন্ন করার ভিত্তিতে আপনাদেরকে একটি প্রোফাইল ওপেন করার সুযোগ দেওয়া হবে এবং প্রোফাইল ওপেন হয়ে গেলে আপনারা সেখানে প্রবেশ করে তথ্য সংশোধনের আবেদন করতে পারবেন।

ওয়েবসাইটে তথ্য সংশোধনের কোন বিষয় নেই বলে আপনাদেরকে নিজস্ব প্রোফাইলে প্রবেশ করে বিভিন্ন তথ্য থেকে কোন তথ্য পরিবর্তন করতে চান তা এদের অপশনে গিয়ে পরিবর্তন করে ফেলুন। এডিট অপশনে গিয়ে প্রত্যেকটি তথ্য সঠিক করার মাধ্যমে এবং ওয়েবসাইটে টাকা ডিপোজিট করার মাধ্যমে আপনাদের পেমেন্ট করতে হবে। অর্থাৎ যে কোন মোবাইল ব্যাংকিং একাউন্ট ব্যবহার করে আপনারা নির্দিষ্ট ভোটার আইডি কার্ডের নাম্বারে পেমেন্ট করবেন এবং পেমেন্ট সম্পন্ন করে ওয়েবসাইটে এসে যে সকল তথ্য যা হবে এবং যোগাযোগের নাম্বার চাওয়া হবে সেগুলো আপনারা প্রদান করবেন।

প্রত্যেকটি কাজ সুসম্পন্ন করে আপনারা আবেদনপত্র ডাউনলোড করবেন এবং পরবর্তীতে এসএমএস পাওয়ার জন্য অপেক্ষা করবেন। এসএমএস পেলে বুঝতে পারবেন আপনাদের ভোটার আইডি কার্ড সংশোধন হয়ে গিয়েছে এবং আপনারা সেখান থেকে ভোটার আইডি কার্ড ডাউনলোড করে নিতে পারবেন এবং অরিজিনাল কপি পেয়ে যাবেন।

Related Articles

3 Comments

  1. আমি ভুল সংসধনের জন্য আবেদন করেছিলাম। এবং যেসব ডকুমেন্ট চেয়েছিলো সবগুলো জমা দিয়েছিলাম।কিন্তু এখন বলে আবেদনটি বাতিল করা হয়েছে। এখন আমার কি করার আছে জানতে পারলে ভালো হতো

  2. রেজিষ্ট্রেশন করার সময় যে যাচাইকরণ কোড লাগে ওটা তো আসেনা মোবাইলে। অনেক ট্রাই করলাম। এখন কোড না আসার কারণ কী? কত বার যে চেস্টা করলাম হিসাব নেই। কিন্তু কোড আসেনা। কী করা যায়?
    আপনি পোস্ট দিয়েই মনে হয় ঘুমিয়ে গেছেন। নাহলে রিপ্লাই দেন না কেন?

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button